Monday , December 17 2018

সুইফট-কামিলার জয়

সর্বোচ্চ আটটি মনোনয়ন পেয়েছিলেন ড্রেক। কিন্তু এবারের এএমএ [আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস] হয়ে উঠল টেইলর সুইফট আর কামিলা কাবেওময়। পুরস্কারের ৪৬তম আসরে সর্বোচ্চ চারটি করে পুরস্কার জিতেছেন দুজন। তবে এবারের এএমএ ছিল পুরোটাই সুইফটময়। একে তো তিন বছর পর অনুষ্ঠানে পারফরম করেছেন, তার ওপর জিতেছেন চার-চারটি পুরস্কার। যেগুলো হলো আর্টিস্ট অব দ্য ইয়ার, ট্যুর অব দ্য ইয়ার, ফেভারিট ফিমেল আর্টিস্ট—পপ/রক ও ফেভারিট অ্যালবাম। এ নিয়ে মোট ২৩টি এএমএ পুরস্কার হলো তাঁর।







গায়িকাদের মধ্যে এত পুরস্কার নেই আর কারো। পুরস্কার নিয়ে আপ্লুত গায়িকা বলেন, ‘প্রতিবার এটা [পুরস্কার] অন্য রকম অনুভূতি তৈরি করে। সাহস, আত্মবিশ্বাস, আরো ভালো করার প্রেরণা দেয়।’ দিন দুই আগে ডেমেক্র্যাটদের ভোট দেবেন বলে ঘোষণা দেওয়ার পর গায়িকাকে নিয়ে বাড়তি আগ্রহ তৈরি হয়। সুইফটও হতাশ করেননি। মধ্যবর্তী মার্কিন নির্বাচন প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘আপনাদের ভোটে পুরস্কার পেয়েছি।







আপনারাও ভোট দিন। ৬ নভেম্বর মধ্যবর্তী নির্বাচন।’ এদিন মঞ্চে এসে সব শিল্পীই কমবেশি নির্বাচনে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান। কিউবান-আমেরিকান শিল্পী কামিলা কাবেওর এবারের এএমএ কাটল স্বপ্নের মতো। ‘ফিফথ হারমোনি’র এই সাবেক সদস্য এবার নিউ আর্টিস্ট অব দ্য ইয়ার, ভিডিও অব দ্য ইয়ার, ফেভারিট সং—পপ/রক ও কোলাবরেশন অব দ্য ইয়ার জিতেছেন। অন্য পুরস্কারের মধ্যে উল্লেখযোগ্যগুলো পেয়েছেন পোস্ট ম্যালোন [ফেভারিট মেল আর্টিস্ট—পপ/রক], ব্ল্যাক প্যান্থার [ফেভারিট সাউন্ডট্র্যাক], শন মেন্ডেস [ফেভারিট আর্টিস্ট—অ্যাডাল্ট কনটেম্পোরারি], ক্যারি আন্ডারউড [ফেভারিট ফিমেল আর্টিস্ট—কান্ট্রি]।







অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় ক্যারি আন্ডারউডের পারফরম্যান্সও ছিল অনুষ্ঠানের অন্যতম উল্লেখযোগ্য বিষয়। এবারের এএমএতে সম্প্রতি প্রয়াত কিংবদন্তি গায়িকা আরেথা ফ্রাংকলিনকে সন্মান জানানো হয়। তাঁকে উৎসর্গ করা একটি যৌথ পারফরম্যান্স দিয়েই শেষ হয় অনুষ্ঠান। এ ছাড়া লস অ্যাঞ্জেলেসের মাইক্রোসফট থিয়েটারে অনুষ্ঠিত এবারের আসরে পারফরম করেন মারায়া ক্যারি, জেনিফার লোপেজ, শন মেন্ডেস প্রমুখ।