Tuesday , December 11 2018

যে কারণে দলে রাব্বি

‘স্বপ্ন সত্যি হলো। অনেকদিন এই সুযোগটার অপেক্ষায় ছিলাম। সুযোগটা ভালো মতো কাজে লাগাতে চাই।’ ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের ঘোষিত ওয়ানডে সিরিজের দলে জায়গা পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন ফজলে রাব্বি।







বাংলাদেশ ক্রিকেটে তার আর্বিভাব ছিল প্রতিভাবান তরুণ এক ক্রিকেটার হিসেবে। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট শুরু করেন মাত্র ১৬ বছর বয়সে। কিন্তু সাকিব-মাহমুদুল্লাহদের ভিড়ে জাতীয় দলে নিজের অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখানোর সুযোগ মেলেনি এতোদিন। দলে যখন সুযোগ পেলেন তখন বয়স হয়ে গেছে ৩০ বছর।







ঘরোয়া ক্রিকেটের এক অভিজ্ঞ মুখ তিনি। মাঠে নামেন ১৪ বছর ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা নিয়ে। এবার সেই অভিজ্ঞতা জাতীয় দলের হয়ে দেখানোর সুযোগ পেয়েছেন তিনি। হোক না বয়স ৩০ বছর। তবুও তো এই সুযোগটা মিলেছে সাকিব আল হাসানের মতো তারকার জাগয়া পূরণের জন্য।







ফজলে রাব্বি দলে জায়গা পেয়েছেন সাকিবের ইনজুরির কারণে। তার কাঁধে তাই সাকিবের জায়গা পূরণ করার ভার। বাংলাদেশের ক্রিকেট যার জায়গা পূরণ করতে দু’জন ক্রিকেটার লাগে। ব্যাট হাতে একজন, বল হাতে আরেকজন। রাব্বি সেই কাজটা দলে সুযোগ পেলে একাই করে দেখাতে পারেন। কারণ বাঁ-হাতে ব্যাটটা তিনি নেহায়েত খারাপ করেন না। চলতি জাতীয় লিগে গত সপ্তাহে তিনি খেলেছেন ১৯৫ রানের এক দারুণ ইনিংস। এছাড়া দলের প্রয়োজন তার স্পিনটাও বেশ কার্যকরী হতে পারে।







বরিশালের ছেলে রাব্বিকে দলে নেওয়া হয়েছে ঠিক ওই কারণে। দলে নতুন মুখ হিসেবে রাব্বিকে রাখার ব্যাপারে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন বলেন, ‘আমরা রাব্বিকে দলে অন্তর্ভুক্ত করেছি সাকিবের বদলি হিসেবে। কারণ সে ব্যাট ও বল হাতে দলের হয়ে অবদান রাখতে পারে। ঘরোয়া ক্রিকেটে রাব্বি ধারাবাহিক পারফরমেন্স করে যাচ্ছে। এছাড়া বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে সম্প্রতি আয়ারল্যান্ড সফরে সে ভালো করেছে।’







এছাড়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ভালো করতে না পারা পেস অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনকে দলে ফেরানোর ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক বলেন কোচের পছন্দের কথা। কোচ নাকি তাকে দেখে মুগ্ধ। শেষের দিকে তার রান তুলতে পারাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। যেহেতু বাংলাদেশ দল শেষের দিকে ব্যাট করার জন্য একজন পেস বোলিং অলরাউন্ডার খুঁজছে, তাই তাকে সুযোগ দেওয়ার কথা বলেছেন মিনহাজুল আবেদিন।







এছাড়া তামিমের অনুপস্থিতিতে টপ অর্ডারে একজন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রাখার চিন্তা থেকে ইমরুল কায়েসকে দলে রাখা হয়েছে বলে জানান বিসিবি’র প্রধান নির্বাচক।







বাংলাদেশ দল: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, মোহাম্মদ মিঠুন, ইমরুল কায়েস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, আরিফুল হক, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, আবু হায়দার, ফজলে রাব্বি, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন।