Tuesday , October 16 2018

হানিমুনে মাতাল দম্পতি যে কাণ্ড ঘটালেন, তা বিশ্বে হানিমুনের ইতিহাসেই নজিরবিহীন

হানিমুনে শ্রীলঙ্কার এক বিলাসবহুল হোটেলে উঠেছিলেন ব্রিটিশ দম্পতি। তার পরে তারা সেখানে যে কাণ্ড ঘটালেন, তা বিশ্বে হানিমুনের ইতিহাসেই নজিরবিহীন।







এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৭-এর জুন মাসে বিয়ে হয় জিনা লিয়ন্স এবং মার্ক লি-র। তাদের বয়স যথাক্রমে ৩৩ ও ৩৫ বছর। বছরের শেষে তারা শ্রীলঙ্কায় মধুচন্দ্রিমা যাপন করবেন বলে স্থির করেন।







হোটেলে থাকাকালে জিনা ও মার্ক সৈকতে একটা রাত কাটানোর সিদ্ধান্ত নেন। সেখানে তারা বেশ কয়েক বোতল মদ নিয়ে আসর জমান হোটেলের কয়েকজন বয়ের সঙ্গে। ক্রমশ জমে উঠতে থাকে আড্ডা।







হোটেল বয়েরা প্রসঙ্গক্রমে জানান, হোটেলটি লিজ-এ রয়েছে এবং লিজ-এর মেয়াদ শেষ হয়ে এসেছে। ততক্ষণে দম্পতির বেশ টালমাটাল অবস্থা। আরও কয়েক পেগ মদ গলায় ঢেলে তারা সিদ্ধান্ত নেন, তারাই হোটেলটি লিজ নেবেন। হিসাব কষে দেখা যায়, লিজের অর্থমূল্য ৩০,০০০ ব্রিটিশ পাউন্ডের কিছু বেশি।







জিনা এবং মার্ক জানান, তারা এই টাকা দিতে রাজি আছেন। তারা এতটাই মাতাল ছিলেন যে, বিষয়টিকে অত্যন্ত হালকা বলে মনে হয়। তারা লিজ-এর ব্যাপারে কাগজপত্র তৈরি করতে বলেন। যখন কাগজপত্র তৈরি করে তাদের কাছে স্বাক্ষরের জন্য কর্তৃপক্ষ আসে তখনও দম্পতি নেশাগ্রস্ত। দিব্যি সই করে দেন তারা। হোটেলের নতুন ‘বস’ হয়ে বসার পরে তাদের সংজ্ঞা ফেরে। ততক্ষণে পানি গড়িয়ে গেছে বহুদূর।







আপাতত জিনা সন্তানসম্ভবা। মার্ক ও তিনি দেনার বিপুল ভার মাথায় নিয়ে বসে রয়েছেন। বিয়েতেই নাকি তারা বিস্তর খরচ করেছিলেন। সেখানেও রয়েছে দেনা। সব মিলিয়ে মাথায় হাত নয়, হাতে মাথা নিয়ে বসে থাকার দশা এই দম্পতির। প্রচণ্ড খাটছেন হোটেল চালাতে গিয়ে। আশা, হোটেলের লাভ থেকে মেটাতে পারবেন এই বিরাট ঋণ।