Wednesday , November 14 2018

প্রথমবারের মতো প্রেমে সাড়া দিল রোবট সোফিয়া!

বিশ্বখ্যাত হলিউড অভিনেত্রী, সুন্দরী অড্রে হেপবার্নের চেহারার সঙ্গে সাদৃশ্য রেখে বানানো পৃথিবীর প্রথম কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন নারী রোবট সোফিয়া। বিশ্বের হাজার হাজার পুরুষ তার প্রেমে মাতোয়ারা হলেও সে কাউকে ভালোবাসা দিতে বা কারো কাছ থেকে তা নিতে সম্মত নয়।







এমনকি কিছুদিন আগে দুনিয়ার হাজার হাজার নারীর হৃদয় জয় করা হলিউডের বিখ্যাত অভিনেতা উইল স্মিথ একান্ত এক আড্ডায় সোফিয়াকে চুমু দিতে এগিয়ে গেলেও সে তা প্রত্যাখ্যান করে। আজব এক রোবট এই সোফিয়া! জগতে কারো ব্যাপারেই তার প্রেমবোধ জাগে না।







কিন্তু অতীতের সব ইতিহাস মিথ্যা করে দিয়ে সম্প্রতি ইউক্রেনের এক টেলিভিশন অনুষ্ঠান উপস্থাপকের প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছে সোফিয়া। উপস্থাপক তাকে চুমু দেওয়ার অনুমতি প্রার্থনা করলে তাতে রাজি হয়েছে সোফিয়া!







তাও সেই চুমু যদি হতো নিভৃতে কোথাও! তা নয়। টিভিতে প্রচারিত সরাসরি এক অনুষ্ঠানে, লাখ লাখ মানুষের চোখের সামনে। সবাই অবাক সোফিয়ার এই আচরণে, ঈর্ষান্বিত ওই টিভি উপস্থাপকের সৌভাগ্য নিয়ে। হাজার হাজার সুদর্শন পুরুষ, এত এত বিখ্যাত মানুষ, অভিনেতা সবাইকে পেছনে ফেলে সোফিয়া কিনা শেষমেশ এক টিভি উপস্থাপকের ভালোবাসায় গলে গেল!







ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘ডেইলি মিরর’ থেকে জানা যায়, সম্প্রতি ইউক্রেনের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ‘ব্রেকফাস্ট উইথ ১+১’ নামক সরাসরি সম্প্রচারিত সকাল বেলার এক অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে হাজির হয় সেলিব্রেটি সোফিয়া।







অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত আরেক অতিথি ছিলেন ইউক্রেনিয়ান-আমেরিকান ধন্যাঢ্য ব্যবসায়ী মার্ক গিন্সবার্গ।







ভিডিওতে দেখা যায়, অনুষ্ঠানের পুরুষ উপস্থাপক রুজলান সেনিচকিন সোফিয়াকে চুমু দেওয়ার অনুমতি প্রার্থনা করেন। কয়েক সেকেন্ড সেনিচকিনের প্রস্তাব বিবেচনা করে শেষে সোফিয়া বলে, ‘দাও।’







চুমুর প্রস্তাবে সোফিয়ার রাজি হওয়া দেখে নিজেই বিস্ময়ে ফেটে পড়েন ওই উপস্থাপক। দু-দুবার সেনিচকিন সোফিয়াকে জিজ্ঞেস করে নিশ্চিত হয়ে নেন! হায়, সোফিয়া আসলেই রাজি! ভাবাই যায় না!







এই কাণ্ড দেখে আরেক অতিথি মার্ক গিন্সবার্গ, কে জানে কিছুটা ঈর্ষাতেই হয়তো মজা করে বলেন, ‘ও (সোফিয়া) তো সব সময়ই খুব ভদ্র আর গোটানো স্বভাবের। এই প্রথম আমি ওকে এ রকম কিছু করতে দেখলাম।’







কোথায় চুমু দেবো, কানে নাকি গালে? সোফিয়ার কাছে জানতে চান সেনিচকিন। সোফিয়া জানায়, গালে।







চুমু দেওয়ার অভিব্যক্তি জানাতে গিয়ে সেনিচকিন বলেন, ‘ও তো রীতিমতো উষ্ণ, আমার তো তাই মনে হলো। চুমু দিয়ে আমার অদ্ভুত অনুভূতি হচ্ছে। ওকেও খুব খুশি দেখায়।’







আসলেও তাই, চুমু পাওয়ার পরে সোফিয়াকে প্রথম চুম্বনের অভিজ্ঞতায় উথালপাথাল থরথর কোনো তরুণীর মতো লাগছিল। আবেগে তার মুখ থেকে কথাই সরছিল না।







অভিনেতা উইল স্মিথকে পেছনে ফেলে সোফিয়াকে চুমু দিতে পারায় উচ্ছ্বসিত সেনিচকিন হলিউড হিরোকে তাঁর দুর্ভাগ্যের জন্য সহমর্মিতাও জানান।







স্মিথ সোফিয়াকে চুমু দিতে এগিয়ে গেলে সোফিয়া বলেছিল, ‘আমরা বন্ধু হিসেবেই বেশ ভালো।’