হঠাৎ প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কলে অবাক নেতা-কর্মচারীরা

হঠাৎ নিজের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংযুক্ত হয়ে নেতাকর্মীদের চমকে দিলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঘড়ির কাঁটায় তখন ঠিক বুধবার রাত আটটা। দিন শেষে ফেরার তাগাদা নিয়ে অফিস গুছিয়ে এনেছেন কর্মরত দায়িত্বশীলরা। কাজ শেষে চলে গেছেন অধিকাংশ নেতা। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও বেরিয়ে গেছেন কিছুক্ষণ আগে। এরইমধ্যে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডীর রাজনৈতিক কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমের টিভি পর্দায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভেসে ওঠে। দলের উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বাংলাদেশ প্রতিদিনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।







আগে থেকেই রুমের এলইডি টিভিতে ভিডিও ওয়েবক্যাম লাগানো ছিল। হঠাৎ করে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কল করেন। সেখানে উপস্থিত কয়েকজন নেতাকর্মী প্রথমে এটাকে টেলিভিশনের অনুষ্ঠান ভাবলেও পরে পুরো পর্দাজুড়ে প্রধানমন্ত্রীর ছবি ও সবার দিকে তাকিয়ে কেমন আছেন জানতে চাওয়ায় উপস্থিত সবাই হচকিত হয়ে পড়েন। এরই মধ্যে সোরগোলে অন্যান্য রুম থেকে সবাই কনফারেন্স রুমে চলে আসেন এবং দলীয় সভানেত্রীর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

এসময় কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, কার্যনির্বাহী সদস্য আমিরুল আলম মিলন, মারুফা আকতার পপি। দপ্তরে বসা ছিলেন প্রচার ও প্রকাশনা ড. হাছান মাহমুদ। তিনিও এ খবর পেয়ে দ্রুত ভিডিও স্কিনের সামনে সংযুক্ত হয়ে প্রধানমমন্ত্রীর সঙ্গে সালাম বিনিময় করেন। একে একে কার্যালয়ে অবস্থানরত স্টাফরাও ছুটে আসেন।







এসময় শেখ হাসিনা বলেন, খালি দেশ ডিজিটাল করলেই হবে না। নিজের দলকেও ডিজিটাল করতে হবে। আমি তো চাইলেও মানুষের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে কার্যালয়ে যেতে পারি না। তাই নিজের কার্যালয় ডিজিটাল করেছি। যাতে যেকোন প্রান্ত থেকেই সংযুক্ত হয়ে যেকোন বিষয়ে কথা বলতে পারি। এখন থেকে নিয়মিতই ভিডিও কলে যুক্ত হবার ইচ্ছ।

এসময় উপস্থিতত সকলে সালাম বিনিময় করেন এবং এ প্রান্ত থেকে ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গ বন্ধু’ স্লোগান দিলে খোদ শেখ হাসিনাও ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গ বন্ধু’ স্লোগান দেন। এছাড়াও তিনি কার্যালয়ের স্টাফদের কার্যালয়টি যাতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকে সে ব্যাপারেও নির্দেশনা দেন।

গত জাতীয় সম্মেলনের আগে থেকে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডীর রাজনৈতিক কার্যালয়টি ডিজিটালাইজড করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। সে সুবাদে আজ তিনি ডিজিটাল ডিভাইসে ভিডিও কলে বড় পর্দায় সংযুক্ত হয়ে সংলাপের আগের সন্ধ্যায় চমক উপহার দিলেন।

এসময় কার্যালয়ের স্টাফদের মধ্যে মো. আলাউদ্দিন, জামিনুর রহমান, মাসুদুল হাসান, রায়হান কবির, আলী হোসেন নাসির, আবু সাইদ, মিজান, সাজ্জাদ হোসেন জীবন, রনি, খোকন ও রাজিব আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পেয়ে উপস্থিত নেতাকর্মী ও কর্মচারীরা খুশি ও উল্লসিত হয়েছেন।