Thursday , November 15 2018

যে কারণে বরযাত্রীর বাস থামিয়ে ২৯ জনকে আটক করল পুলিশ

বরযাত্রীর বাস থামিয়ে- নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে বাস থামিয়ে ২৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মুন্সীখোলা চেকপোস্ট এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- বাদল মিয়া, আবু তাহের, জাহাঙ্গীর হোসেন, আশরাফুল ইসলাম, শামীম, সালামত গাজী, সানাউল্লাহ, রবিউল আউয়াল, শিবলী আহম্মেদ, জসিম উদ্দিন, হাবিব, শানু মিয়া, সাহেব আলী, মিজানুর রহমান, সুলতান আহম্মেদ, উজ্জল, মামুন আহম্মেদ, সাগর, মিজানুর রহমান, নিজাম উদ্দিন, ওসমান গনি, বজলুর রহমান, রিপন শেখ, ওয়াজ করুনী, কামাল হোসেন, আমিনুল ইসলাম, হাসানুল ইসলাম বাপ্পী, ফয়সাল ও মিন্টু।







পুলিশের দাবি, তাদের সবার বাড়ি মুন্সীগঞ্জ সদর থানা এলাকায়। তারা সবাই বিএনপির নেতাকর্মী। মুন্সীগঞ্জ থেকে বাস রিজার্ভ করে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে যাওয়ার পথে তাদের আটক করা হয়।

তবে আটক ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে নয়, বাস রিজার্ভ করে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন তারা। ফতুল্লার মুন্সীখোলা চেকপোস্ট এলাকায় পৌঁছালে বাস আটকে তাদের আটক করে পুলিশ। তারা মুন্সীগঞ্জ থেকে বরযাত্রী হিসেবে ঢাকার খিলগাঁওয়ে বিয়ে বাড়িতে যাচ্ছিলেন।







ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইলিয়াস আলী বলেন, ফতুল্লার মুন্সীখোলা চেকপোস্ট এলাকায় একটি বাসে যাত্রী দেখে সন্দেহ হলে গতিরোধ করা হয়। পরে বাসে থাকা ২৯ জন যাত্রীকে আটক করা হয়। তারা বরযাত্রী হিসেবে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা বললেও তাদের পোশাকে তা বোঝা যায়নি।

তিনি আরও বলেন, আটককৃতরা বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তাদের সবার বাড়ি মুন্সীগঞ্জ সদর থানা এলাকায়। আমাদের ধারণা, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ঢাকায় সমাবেশে যাচ্ছিল তারা। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।