Wednesday , November 14 2018

মুক্তির দিনই চূড়ান্ত হতাশ দর্শকরা: ঠকিয়ে দিল ‘ঠাগস অফ হিন্দুস্তান’

‘ঠাগস অফ হিন্দুস্তান’ ছবির শুটিং শুরুর সময় থেকেই সিনেপ্রেমীদের উত্তেজনার পারদ চড়েছিল। ছবির ট্রেলার মুক্তি পাওয়ার পর সেই উত্তেজনা দ্বিগুণ হয়। অমিতাভ বচ্চন, আমির খান, ক্যাটরিনা কাইফের মতো বলিউডের প্রথম সারির অভিনেতাদের যে ছবিতে একসঙ্গে দেখা যাবে, তা নিঃসন্দেহে দর্শকের মন ভরাবে। এমনটাই প্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু বাস্তবে হল ঠিক উলটো। তারকাদের উপস্থিতিই সার। মুক্তির দিনই চূড়ান্ত হতাশ করল বিজয় কৃষ্ণ আচার্যের ছবি।







গোটা বিশ্বে সাত হাজারেরও বেশি স্ক্রিনে বৃহস্পতিবার মুক্তি পেয়েছে ছবিটি। প্রথম দিনের টিকিটও বিক্রি হয়ে গিয়েছিল আগেই। উত্‍সবের মরশুমে বিগ বাজেটের ছবিটি দেখতে সিনেমা হলমুখী হয়েছিলেন ভারতের দর্শকরা। কিন্তু যতটা প্রত্যাশা নিয়ে গিয়েছিলেন, বেরিয়ে আসার সময় ততটাই হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন তাঁরা। নেটদুনিয়ায় ক্রমাগত সমালোচিত হচ্ছে ছবিটি। কয়েকটি অ্যাকশনের দৃশ্য ভাল লাগলেও ক্যাটরিনার চরিত্রটি একেবারেই পছন্দ হয়নি দর্শকদের। তাবড় তাবড় অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করার সুযোগকে মোটেই কাজে লাগাতে পারেননি পরিচালক। আর তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় এ ছবির ভাগ্যে জুটেছে শূন্য পয়েন্ট।







ব্রিটিশ রাজ্যে ঠগেদের কাহিনিকে পর্দায় তুলে ধরেছেন পরিচালক বিজয় কৃষ্ণ আচার্য। ঝাঁ চকচকে দৃশ্যায়ণ। অমিতাভ এখানে ঠগদের সর্দার। ঠগ বলতে এখানে কিন্তু ঠগী নয়, জলদস্যু। তাদের সর্দার খুদাবক্স। ব্রিটিশদের পদদলিত হওয়া তার একেবারেই পছন্দ নয়। তাই বিদেশিদের কালঘাম ছোটাতে ব্যস্ত সে। দেশ থেকে ইংরেজ হটাও অভিযানে নিজের মতো করে শামিল হয়েছে সে। ব্রিটিশদের জাহাজ দেখলেই লুট করে নেয়। তার দলের অন্যতম সেরা যোদ্ধা জাফিরা। এই দুই জলদস্যুর দাপটে ব্রিটিশের নাকানিচোবানি অবস্থা। এমন পরিস্থিতি থেকে তাদের উদ্ধার করতে পারে একমাত্র তাদের মতোই এক ঠগ। এই সময়ই ব্রিটিশদের ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয় ফিরঙ্গি মল্লা (আমির খান)। কানপুরের এই যুবক নিজেকে বিশ্বাসঘাতক বলেই পরিচয় দেয়। খুদাবক্সকে কবজায় আনতে একেই ঘুঁটি হিসেবে ব্যবহার করে ব্রিটিশরা। তাদের হয়েই ঠগদের সর্দারের মন জয় করে সে। তারপরের কাহিনি মন ভরাতে পারেনি দর্শকদের। তিন ঘণ্টার ছবিটিতে কাহিনিকে অহেতুক টেনে বাড়ানো হয়েছে।







থ্রি ইডিওটস, ধুম থ্রি, পিকে, দঙ্গল-এর মতো সুপারহিট ছবি উপহার দিয়েছেন আমির খান। সেখানে কীভাবে তিনি এমন একটি ছবিতে অভিনয় করলেন, তা কিছুতেই বুঝে উঠতে পারছেন না দর্শকরা। যদিও সিনেমা বিশ্লেষক তরুণ আদর্শের মতে, এ ছবি প্রথম দিনই বক্স অফিসে ৫০ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলতে পারে। কারণ একটাই। প্রত্যাশায় ভর করেই বিক্রি হয়ে গিয়েছিল প্রথমদিনের প্রায় সব টিকিট। আর তাতেই মুখরক্ষা হবে আমির, বিগ বি-দের। অর্থাত্‍ বক্স অফিসে বাজিমাত করলেও সিনেপ্রেমীদের ঠকিয়ে দিল ‘ঠাগস অফ হিন্দুস্তান’।