Tuesday , January 22 2019

নিজেকে সুন্দরী করতে নারী সাংবাদিকের কান্ড!

এস্থার হোনিগ নামের এক নারী সাংবাদিক নিজের ছবিতে সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে নিয়োগ দিয়েছিলেন ৪০ জন ফ্রিল্যান্স ফটোশপ বিশেষজ্ঞ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ছবিটি কতটা সুন্দর হয়েছে?

মেকআপ আর ফটোশপ এখন সৌন্দর্য বাড়ানোর কাজে লাগানো হচ্ছে। কিন্তু এই সৌন্দযের মানদণ্ড কী দাঁড়িয়েছে? এ বিষয়টি নিয়ে কাজ করতে পেশায় সাংবাদিক এস্থার হোনিগ ‘বিফোর অ্যান্ড আফটার’ নামের একটি প্রকল্পে কাজ করছেন।

ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে ২৫টি দেশের ৪০ জন ফটোশপ বিশেষজ্ঞকে কাজে লাগিয়েছিলেন এস্থার হোনিগ। এই ৪০ জন ফটোশপ বিশেষজ্ঞের কাছে তিনি অনুরোধ করেছিলেন তাঁকে যতটা সম্ভব সুন্দর করে তুলতে। মজার বিষয় হলো এই প্রকল্পে বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সার ফটোশপের একজন বিশেষজ্ঞও কাজ করেছেন।

এস্থার হোনিগ জানিয়েছেন, ফটোশপের মাধ্যমে সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে প্রত্যেকের ব্যক্তিগত পছন্দ ও তাঁর সংস্কৃতির প্রতিফলন দেখা গেছে। এ ক্ষেত্রে সৌন্দর্য একেক জনের চোখে একেক রকম ভাবে ফুটে উঠেছে।