Tuesday , January 22 2019

‘হারিয়ে যাওয়া মন’ খুঁজে দিতে পুলিশের দ্বারস্থ যুবক!

চোর চুরি করবে এটাই তো স্বাভাবিক। আর পুলিশ সেই চোরকে খুঁজে বের করবে এটাই তার কাজ। কিন্তু পুলিশের কাছে এক যুবক তাঁর হারিয়ে যাওয়া হৃদয় খুঁজে দেওয়ার আবদার নিয়ে হাজির হলেন। ওই যুবক পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান, এক তরুণী তাঁর মন চুরি করে গা-ঢাকা দিয়েছে। তাকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব নিতে হবে পুলিশকে। এই পরিস্থিতিতে স্বাভাবিকভাবেই হতবাক তারা।

ভারতীয় একাধিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, পুলিশ চুরি যাওয়া জিনিস খুঁজে দিতে পারে, কিন্তু মন চুরি হলে তা কি করে খুঁজবে এখন সেটাই ভাবাচ্ছে তাদের। পুলিশের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক এই আজব অভিযোগ পাওয়ার পর এই সমস্যার কীভাবে সমাধান করবে তার জন্য শীর্ষ আধিকারিকের পরামর্শ নিচ্ছেন।

ভারতের মহারাষ্ট্রের নাগপুরের একটি থানাতে এই অদ্ভুত ঘটনাটি ঘটে। ভারতীয় আইনেও এমন কোনও ধারা নেই। তাই যুবকের কথা শুনে পুলিশ কর্মীরা বিভ্রান্ত হয়ে পড়েন। এরপর যুবককে জানিয়ে দেওয়া হয় এরকম কোনও আইন এ দেশে নেই। অতএব তাঁকে সাহায্য করা পুলিশের পক্ষে অসম্ভব।

জানা গিয়েছে, নাগপুরের একটি থানায় মাত্র কয়েকদিন আগেই এই ঘটনাটি ঘটেছে। খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন নাগপুরের পুলিশ কমিশনার ভূষণ কুমার উপাধ্যায়। কিছু দিন আগে শহরের বিভিন্ন জায়গা থেকে চুরি হওয়া প্রায় ৮২ লক্ষ টাকার সামগ্রী মালিকদের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে নাগপুর পুলিশ। সেখানেই সাংবাদিকদের কমিশনার বলেন, চুরি হয়ে যাওয়া জিনিস আমরা খুঁজে দিতে পারি কিন্তু অনেক সময় এমন সমস্ত অভিযোগ আসে যার কিনারা করা আমাদের পক্ষেও অসম্ভব। তার পরই তিনি এই ঘটনাটি উল্লেখ করেন।