Wednesday , June 26 2019

এবার মোদির বিরুদ্ধে লড়ছেন কারিনা!

মোদির বিরুদ্ধে লড়ছেন- ভারতের লোকসভা নির্বাচনে অংশ নিতে চলেছেন নবাব পুত্র সাইফ আলী খানের জীবন সঙ্গিনী কারিনা কাপুর। শোনা গেছে, রাহুল গান্ধীর দল কংগ্রেসের টিকিটে, মধ্য প্রদেশের ভোপাল থেকে নির্বাচন করতে পারেন এই বলিউড সুন্দরী।

বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে পর্যুদস্ত করে দখল নিয়েছে কংগ্রেস। তারপর থেকেই আসন্ন লোকসভা নির্বাচন নিয়ে ঘুঁটি সাজাতে শুরু করে দিয়েছে দল।

তাদের স্ট্র্যাটেজি, এমন কোনো জনপ্রিয় মুখ বেছে নেওয়া, তার উপস্থিতি দলকে অক্সিজেন দেবে। আর সেই তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন কারিনা।কারিনাকে দলের টিকিট দেয়ার জন্য জোর তৎপরতা শুরু করেছেন কংগ্রেসের দুই নেতা গুড্ডু চৌহান এবং অনীস খান।

তাদের বক্তব্য, কারিনা একটা বিরাট ফ্যান ফলোয়িং রয়েছে। যার ফলে তিনি ভোটের ময়দানে নামলে যুব প্রজন্ম তাকেই জেতাবে।শুধু তাই নয়, মনসুর আলি খান পতৌদির পুত্রবধূ হওয়ার বিষয়টিও কfরিনার আরেকটি প্লাস পয়েন্ট।

কারণ কিংবদন্তি এই ক্রিকেটারের জন্ম হয়েছিল ভোপালেই। পতৌদির পিতামহই ভোপালের শেষ নবাব হিসেবে রাজত্ব করেছিলেন।পতৌদি পরিবারের সঙ্গে ভোপালের সম্পর্ক এখনও বেশ নিবিড়।

সাইফ-করিনা, শর্মিলা ঠাকুর, সোহা আলী খানদের অনেকবারই ভোপালে আসতে দেখা গিয়েছে। ফলে কারিনা ভোটে দাঁড়ালে যে তিনি ভোপালবাসীর ভালবাসা পাবেন, সে ব্যাপারে নিশ্চিত কংগ্রেস।

আর তাই কারিনাকেই বিজেপির বিরুদ্ধে হাতিয়ার করে ভোট ময়দানে নামতে চাইছে তারা। বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার জন্য মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের সঙ্গে সাক্ষাৎ চাইছেন কংগ্রেসের ওই দুই নেতা।

উল্লেখ্য, ১৯৯১ সালে এই ভোপাল থেকেই লোকসভা নির্বাচনে লড়েছিলেন মনসুর আলি খান পতৌদি। তবে সেবার বিজেপির সুশীলচন্দ্র বর্মার কাছে বিপুল ভোটে পরাস্ত হয়েছিলেন তিনি।

তবে কারিনার জয়ের বিষয়ে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী কংগ্রেসের দুই নেতা। যদিও এ খবর বিজেপির কানে পৌঁছতেই কংগ্রেসকে একহাত নিতে শুরু করেছেন বিরোধী নেতারা।

বিজেপির বক্তব্য, লোকসভা নির্বাচনে লড়াইয়ের জন্য কংগ্রেসের কোনো নেতা নেই। তাই তাদের বলিউড নায়িকাদের দলে ভেড়াতে হচ্ছে। তবে এসব করে যে বিজেপিকে হারানো সম্ভব নয়, সে হুঙ্কারও দিয়েছেন সাংসদ অলোক সাঙ্গার।