Wednesday , June 26 2019

অন্যরা ব্যস্ত ছবি তোলায়, ব্যতিক্রম শুধু শিশু নাঈম ।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) দুপুর। রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ারে আগুন। জীবন বাঁচাতে অনেকেই ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ছেন। আর সেখানে দাঁড়িয়ে থেকে এসব দৃশ্য মোবাইলে ধারণ করছেন অনেকে। তবে ব্যতিক্রম দেখা গেল ছোট শিশু নাঈমকে।

আগুন নেভানোর কাজে ব্যবহৃত ফায়ার সার্ভিসের একটি পাইপের ফাটা অংশ দুহাতে চেপে ধরে আছে ছোট ওই শিশু। ফাটা পাইপ দিয়ে বের হয়ে যাওয়া পানি আটকে রাখার জন্যই তার ছোট দুই হাতের চেষ্টা। তবে সেই একই সময়ে তার পাশে দাঁড়িয়ে অন্যরা ব্যস্ত ছিল ছবি তোলায়। ছোট এই শিশুর এমন কর্মকান্ডের ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। অনেকেই বলছেন, যেখানে অধিকাংশ মানুষ ছবি তোলায় ব্যস্ত সেখানে দারুণ দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন এই ছোট্ট শিশুটি।

জানা গেছে, পাইপের ফাটা অংশ দুহাতে চেপে ধরে থাকা শিশুটির নাম নাঈম ইসলাম। রাজধানীর কড়াইল বস্তিতে বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকে নাঈম। তার বাবার নাম রুহুল আমিন। তার বাবা একজন ডাব বিক্রেতা আর মা কর্মজীবী। বর্তমানে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে নাঈম। পাইপের ফাটা অংশ চেপে ধরার বিষয়ে জানতে চাইলে নাঈম বলে, মানুষ বাঁচাতে পাইপ চেপে ধরেছিলাম। পাইপ ফাটা থাকলে তো পানি সব অন্য দিকে পড়ে যায়। ভেতরের মানুষগুলো যেন বাঁচে সেজন্য ওই সময় আল্লার কাছে সবাই দোয়া করছিল। আমিও চাইছিলাম একটু সাহায্য করে যদি কাউকে বাঁচানো যায়।

সে জানায়, এর আগে কড়াইল বস্তিতে নিজের চোখের সামনে তাদের ঘর পুড়ে যেতে দেখেছে নাঈম। ঘর পুড়লেও আশাহত হয়নি সে। বড় হয়ে সরকারি চাকরি করার স্বপ্ন নাঈমের।

উল্লেখ্য, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এ পর্যন্ত ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা মেডিকেল থেকে ১০ জনের, কুর্মিটোলা হাসপাতাল থেকে ৬ জনের, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল- সিএমএইচ থেকে ৪ জনের, ইউনাইটেড হাসপাতাল থেকে ৩ জনের এবং অ্যাপোলো হাসপাতাল থেকে একজনের এবং বনানী ক্লিনিক থেকে একজনের মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ/এসএইচআর/এমআর