কুরআন অবমাননাকারী সেফাতুল্লাহর শুনানি জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে

পবিত্র কুরআন অবমাননাকারী এবং মহানবী হযরত মোহাম্মদকে (স.) নিয়ে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রদানকারী সেফাতুল্লাহর মামলার শুনানি আগামী জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার রাজধানী ভিয়েনা মুসলিম সেন্টারে বিভিন্ন দেশের মুসলিম কমিউনিটির নেতাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে মামলার বাদী

এশিয়ান কালচারাল কমিউনিটির চেয়ারম্যান এবং ইসলামিক রিলিজিয়াস অথরিটির ইন অস্ট্রিয়ার সুপ্রিম কাউন্সিলের সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এম এ হাসিম এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, অস্ট্রিয়া প্রবাসী সেফাতুল্লাহর বিরুদ্ধে এপ্রিলের শেষে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন এবং আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়। পরবর্তীতে এই মামলার অগ্রগতির ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে পুলিশ প্রশাসন মামলার সময় সেফাতাল্লাহর নথি এবং ভিডিও আদালতে দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের প্রসিকিউটর আদালতে সেফাতুল্লাহর শাস্তির আবেদন করবেন। এমতাবস্থায় আগামী জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে মামলার শুনানি ধার্য করা হয়েছে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান কালচারাল কমিউনিটির ভাইস চেয়ারম্যান মাহেরুল হক শামীম, ইন্দোনেশিয়ান কমিউনিটির লিডার এ এইচ জুনরিশাহ, তুর্কমনে, এম বাইসাল, আফগান কমিউনিটির নাসারি, আকরাম বাউজা এবং মসজিদুল ফালাহর ট্রাস্ট্রি বোর্ডের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৭-৮ বছর আগেও ইসলাম ধর্ম অবমাননা করায় সেফাতুল্লাহর বিরুদ্ধে ভিয়েনার বায়তুল ফালাহ মসজিদের পক্ষে ইঞ্জিনিয়ার এম এ হাসেম একটি মামলা দায়ের করেন। সেফাতুল্লাহ বিগত বছরগুলোতেও ইসলাম ধর্ম নিয়ে বিভিন্ন কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে তোপের মুখে পড়েন।

সর্বশেষ গত ১৭ এপ্রিল ফেসবুক লাইভে ইসলাম ধর্ম, পবিত্র কোরআন এবং মহানবী হজরত মোহাম্মদকে (স.) নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন। এই ভিডিও দেখে ভিয়েনার মুসলিম সমাজের মধ্যে তুমুল উত্তেজনা বিরাজ করে। অনেকেই সেফুতুল্লহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।