হঠাৎ কেন হাসপাতালে পাখি ওরফে মধুমিতা সরকার?

হাসপাতালে পাখি। না শিরোনাম দেখে ভাববেন না কোনও দুসংবাদ আছে। আসলে কথা হচ্ছে ‘কুসুম দোলা’ ধারাবাহিকের। যেখানে রণজয়, শহর কলকাতা ছেড়ে গ্রামে ফিরে এসেছে ইমন। সিরিয়ালের গল্প অনুসারে সেখানে এক হাসপাতালে জয়েন্ট করেছে সে। কারণ এই সিরিয়ালে সে একজন ডাক্তার।
আর ‘পাখি’ নামটি অভিনেত্রী বেশি পরিচিত ফের টিআরপির শিরোনামে বাংলা ধারাবাহিক ‘কুসুম দোলা’৷ একের পর এক গল্পের নানান মোড়কে, দর্শকদের টিভির পর্দার সামনে টানটান রাখতে সক্ষম সিরিয়ালের নির্মাতারা৷ শেষ কয়েকটি এপিসোডে দেখা যায় রূপকথা শ্রুতি এবং রণজয়ের ঘনিষ্ঠতা নিয়ে বেশ বিরক্ত৷ রাগে এবং বিরক্তির জেরে আবারও অপমান করে শ্রুতি এবং রনজয়কে৷ শ্রুতিকে দোষারোপ করে বলে যে ইমন তাঁর কারণেই বাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছে৷

পাখি ওরফে মধুমিতা সরকার
রনজয়, রূপকথাকে ঘর থেকে বেরিয়ে যেতে বলে৷ রূপকথা বারবার রনজয়কে মনে করিয় দেয়, এখনও কতটা প্রয়োজন ইমনের৷ কিন্তু পাল্টাঘাত করে রনজয়৷ রূপকথাকে হিংসুক বলে সে৷ অন্যদিকে ইমন তাঁর নতুন জীবন গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে চলেছে৷ একটি গ্রামের হাসপাতালে যাওয়ার শুরু করেছে সে৷ বাড়িতে মেয়ে পেখমকে রেখে এভাবেই চালাচ্ছে জীবন৷

রনজয় তাঁর বসের সঙ্গে নিজের উজানপুরের ট্রান্সফার নিয়ে৷ ইমন এবং রনজয়ের অহংকারের লড়াই তাঁদের চিরজীবনের মতো আলাদা করে দেবে কিনা সেটাই এখন জানার বিষয়৷