এই হলো আসল স্পাইডারমান! (ভিডিও)

মধ্যাকর্ষণ শক্তিকে হার মানিয়ে স্পাইডারম্যানের মতো উঁচু দালানে লাফিয়ে বেড়ানোই শখ ফরাসি নাগরিক এলেইন রবার্টের। সম্প্রতি প্যারিসের চতুর্থ সুউচ্চ দালানে আরোহণ করেন তিনি। এর আগে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু দালান দুবাইয়ের বুর্জ খলিফাসহ ১৫০টির বেশি আকাশ্চুম্বী দালানে লাফিয়ে উঠেছেন পঞ্চান্ন বছর বয়সী এলেইন।

না, এ কোন শ্যুটিং কিংবা সিনেমার স্ট্যান্ট নয়। শখের বসেই স্পাইডারম্যানের মতো আকাশ্চুম্বী দালানে আরোহন করতে ভালবাসেন তিনি। সু-উচ্চ ভবনে আরোহন করাই তার নেশা। নিরাপত্তারক্ষীদের বাঁধা সত্ত্বেও তাদের চোঁখ ফাঁকি দিয়ে উঠে পড়েন প্যারিস বিজনেস ডিস্ট্রিক্টের চতুর্থ উঁচু ভবনে।

এলেইন রবার্ট। শখের শুরুটা ১১ বছর বয়সে। এরপর গগনচুম্বী দালান আরোহনের নেশায় ঘুরেছেন পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে। বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু দালান দুবাই এর বুর্জ খলিফা থেকে শুরু করে আইফেল টাওয়ার, সিডনি অপেরা হাউজের মতো ১৫০টির বেশি উঁচু দালানে রেখেছেন তার হাত-পায়ের চিহ্ন।

এলেইনের স্পাইডারম্যানের মতো কসরত দেখে হতবাক পথচারীরাও। তার এমন উদ্ভট কাণ্ড দেখতে রাস্তায় ভিড় জমান উৎসুক মানুষ। উৎসুক জনতা জানান, ‘এটা সত্যিই অসাধারণ। আমি বুঝিনা উনি এক তলা থেকে অন্য তলায় কিভাবে যে যান! উনার ওপরে ওঠা দেখে ভয়ে আমারই দম বন্ধ হয়ে আসে।’

বয়স পঞ্চান্ন হলেও দমে যাওয়ার পাত্র তিনি নন। উঁচুতে ওঠার মতো শারীরিক সক্ষমতা থাকা পর্যন্ত আজীবন এভাবেই স্পাইডারম্যানের মতো লাফিয়ে বেড়ানোর কথা জানান এলেইন রবার্ট।

আরোহনকারী এলেইন রবার্ট বলেন, ‘আরোহন করা আমার প্যাশন। এর মাধ্যমেই আমি বেঁচে থাকি। আর কদিন পরেই আমার বয়স হবে ছাপ্পান। খুব বেশি অসুস্থ্য না হলে আমি কখনোই এ নেশা বাদ দিতে পারবো বলে মনে হয়না।’

অনুমতি ছাড়া উঁচু ভবনে আরোহনের জন্য বেশ ক’বার পুলিশের কাছে আটক হয়েছেন তিনি। ২০০৮ সালে বৈশ্বিক উষ্ণায়ন নিয়ে একটি ব্যানার লাগানোর জন্য নিউ ইয়র্ক টাইমস ভবনে উঠলে পুলিশ তাকে আটক করে। পরে আবার তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।