নখকুনির যন্ত্রণা থেকে বাঁচতে

নখকুনির যন্ত্রণা সাধারণত সকলকেই একবার বা একাধিকবার ভোগ করতে হয়। হাতের ও পায়ের নখে ফাঙ্গাস জমে এই ধরণের সমস্যা দেখা দেয়। হাত ও পায়ের ঠিক মত যত্ন না নিলে বা পরিষ্কার না রাখলে এই ধরণের সমস্যা হতে পারে। ঠিক মত যদি যত্ন না নেওয়া হয় তাহলেই বিপদ। নখকুনি অত্যন্ত যন্ত্রণাদায়ক একটি সমস্যা।

এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তির কতগুলি ঘরোয়া উপায় জেনে নিন-

১) নারকেল তেল: নারকেল তেল এই নখকুনি সারিয়ে তোলার সহজ ও কার্যকরী উপায়। নারকেল তেল সাধারণত আমাদের সবার ঘরেই থাকে। তাই আপনার যদি নখকুনি হয়ে থাকে তাহলে নারকেল তেল প্রয়োগ করুন। স্নান করার আগে বা রাতে শুতে যাওয়ার আগে আপনার হাতে ও পায়ের নখে ও তার চারপাশে ব্যথা হওয়া অংশে নারকেল তেল লাগান। এতে আপনি আরাম পাবেন ও খুব তাড়াতাড়ি যন্ত্রণা সেরে যাবে।

২) অলিভ অয়েল: অলিভ অয়েলও আপনার নখকুনি সারিয়ে তুলতে ও এর যন্ত্রণা কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া নিয়মিত অলিভ অয়েল নখে ও তার চারপাশে লাগালে এই ধরনের সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। অলিভ অয়েল ও লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে নখ ও তার আশেপাশের অংশে হালকা করে ম্যাসাজ করুন। অলিভ অয়েল ঠান্ডা হয় তাই এটি খুব তাড়াতাড়ি যন্ত্রনায় আরাম দেয়।

৩) অ্যাপল সিডার ভিনিগার: এই উপাদানটিও নখকুনি হলে তা সারিয়ে তোলে খুব সহজেই। এছাড়া এর নিয়মিত ব্যবহার আপনার হাত ও পায়ের নখকে সুরক্ষিত রাখে। অ্যাপল সিডার ভিনিগার ও জল মিশিয়ে আপনার ব্যথা হওয়া অংশে ৩০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। এরপর ঠান্ডা জলে ধুয়ে শুকনো কাপড় দিয়ে ভালো করে মুছে নিন।