লজ্জায় বাড়ি ছাড়ল সেই বুড়োর স্ত্রী-সন্তান

লজ্জায় বাড়ি ছাড়ল- দিনে দুপুরে বাসভর্তি মানুষের সামনে হস্তমৈথুনের মতো ঘটনায় তোলপাড় চলছে চারদিকে। শনিবার কলকাতায় চলন্ত বাসের এ ঘটনাটি খবরের শিরোনামে বৈদ্যবাটী পুরসভার ১৭ ‌নম্বর ওয়ার্ডের এনসি ব্যানার্জি রোডের বাসিন্দা অসিত রায়।







এক কলেজ ছাত্রী মোবাইল-ক্যামেরায় তার স্বমেহনের দৃশ্য রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়ে দেন। তার পরেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এদিকে অসিতের বাড়ি পরিদর্শন করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে কলকাতার শীর্ষ একটি দৈনিক।

অসিতের এলাকার মানুষ হতভম্ব হয়ে গেছে এমন ঘটনায়। একইসঙ্গে চলছে কানাঘুষা, হাসাহাসি। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, অন্তত ১৫ বছর ধরে স্ত্রী-পুত্র নিয়ে ওই এলাকায় থাকে অসিত। ঘটনা প্রকাশিত হওয়ার পর স্ত্রী-পুত্র বাড়ি ছেড়ে লজ্জায় চলে গেছে। ঘর এখন বাইরে থেকে ঘর তালাবন্ধ। পড়শিরা জা‌নান, শনিবার দুপুরেই ঘরে তালা দিয়ে পাশের বাড়িতে চাবি রেখে স্ত্রী এবং কলেজ পড়ুয়া ছেলে কোথাও চলে গেছে।







এক প্রতিবেশী বলেন, ‘ঘটনার কথা জানতাম না। সকালে পাড়ার দোকানে এক জন মশকরা করে বললেন, কী দাদা, আপনাদের পাশের বাড়ির লোক তো রাষ্ট্রপতি পুরস্কার পাচ্ছেন! তার পরে সব জানলাম। অনেক দিন ধরেই তো দেখছি। আমাদের বাড়ির নলকূপ থেকে জল নিতে আসে। কোনোদিন বাজে কিছু করতে দেখিনি, শুনিওনি।







একই কথা বলছেন পাড়ার মেয়েরাও। এক নারী বললেন, ‘পরিবারের কেউই তেমন মেলামেশা করে না পাড়ায়। কিন্তু কোনোদিন খারাপ অঙ্গভঙ্গি বা কটূ কথা শুনিনি। কার মনে কী থাকে, বোঝা দায়! আমাদেরই এ প্রসঙ্গে কথা বলতে অস্বস্তি হচ্ছে। স্ত্রী, ছেলের অবস্থাটা ভাবুন তো! ওদের যেন কোনো সমস্যা না হয়। ওরা তো কোনো দোষ করেননি।