কন্যা সন্তান হওয়ায় এ কি কাণ্ড বাবার

কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ায় স্ত্রী ও সেই সন্তানকে ছেড়ে চলে গেছেন স্বামী এমন অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, এক বছর আগে ওই নারীর সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে হয় এক যুবকের সঙ্গে। বিয়ের এক মাস পার না হতেই ওই নারীর ওপর অমানবিক অত্যাচার শুরু করে তার স্বামী।







ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বেহালা পাঠকপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।

ওই গৃহবধূর দাবি করেন, বিয়ের পর থেকেই মোটা অঙ্কের টাকা পণ চেয়ে তার ওপর চাপ দিতে শুরু করে স্বামী। এটা না মানলে বেধড়ক মারধর করত সে। এমনকি ওই গৃহবধূ তার স্নাতকের পরীক্ষাও দিতে পারেননি। কারণ মারের চোটে আহত হয়ে সে সময় তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

সম্প্রতি একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন ওই নারী। তারপর থেকেই স্ত্রী ও সদ্যোজাত কন্যাকে শ্বশুরবাড়িতে ফেলে রেখে সম্পর্ক ছিন্ন করেন স্বামী। স্বামী সম্পর্কে এমন অভিযোগ ওই গৃহবধূ।







ওই নারী এও জানিয়েছেন, কেবল শুধুমাত্র কন্যা সন্তান হওয়ার কারণেই তাকে ত্যাগ করেছেন তার স্বামী। তিনি আরো আরো অভিযোগ করে বলেন, সন্তান চাইত না স্বামী। গর্ভবতী হওয়ার পরে তাকে একাধিকবার গর্ভপাত করার জন্য জোরও করেছিল সে। শেষে কন্যা সন্তানের জন্ম হওয়ার পরেই সে তাকে ছেড়ে যায়। এখানেই শেষ নয়, এরপর থেকে ক্রমাগত হুমকিও দিতে থাকে। এক পর্যায় বাধ্য হয়ে পর্ণশ্রী থানায় এ বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেন ওই নারী।

যদিও গোটা ঘটনার কথাই অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত ব্যক্তি।

তিনি জানান, ওই নারীই (স্ত্রী) তার সন্তানকে তার থেকে দূরে সরিয়ে রেখেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে গোটা ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।