মালিতে হামলায় কমপক্ষে ১০ জন নিহত

মালির উত্তরপূর্বাঞ্চলে এক হামলায় কমপক্ষে ১০ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। নাইজার সীমান্তের কাছে চালানো এ হামলা জিহাদিরা চালিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সশস্ত্র তৌয়ারেজ গ্রুপ ও স্থানীয় কর্তৃপক্ষ একথা জানিয়েছে।

এএফপি’র খবরে বলা হয়, সাম্প্রতিক মাসগুলোতে মালির অস্থিতিশীল এই অঞ্চলে বিভিন্ন হামলায় শতাধিক লোক নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে অনেক বেসামরিক নাগরিক রয়েছে। ওই অঞ্চলে ইসলামিক স্টেট গ্রুপের আনুগত্য স্বীকার করা অনেক জিহাদি সংগঠন সক্রিয় রয়েছে।
জিহাদিদের বরাত দিয়ে তৌয়ারেজের দু’টি সশস্ত্র গ্রুপ এক বিবৃতিতে জানায়, রোববার ‘মালি-নাইজার সীমান্তে সক্রিয় স্থানীয় অপরাধী চক্রের সাথে যুক্ত সশস্ত্র দস্যুরা ইঞ্জাগালেনে হামলা চালায়।’
এই দুই গ্রুপের বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘সেখানে তারা বেসামরিক লোকদের ওপর বেপরোয়া গুলি চালায়।’ এতে ১২ জন নিহত হয় এবং তিনটি গাড়িতে আগুন ধরে যায়।

এদিকে এ অঞ্চলের প্রধান নগরী মানেকায় সরকারি একজন কর্মকর্তা এ হামলার খবর নিশ্চিত করেছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই কর্মকর্তা এএফপি’কে বলেন, ‘মটরসাইকেলে করে আসা সশস্ত্র ব্যক্তিরা ইঞ্জালেন বাজারে হামলা চালায় এবং আগুন ধরিয়ে দেয়।’
সূত্র আরো জানায়, তারা জনগণকে লক্ষ্য করে গুলি চালালে কমপক্ষে ১৪ জন নিহত হয়।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক মাসগুলোতে মালিতে একের পর এক হামলার ঘটনা ঘটছে। এসব হামলার ঘটনা পশ্চিম আফ্রিকার এ দেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতির দূর্বলতার চিত্রই তুলে ধরছে।