বাংলাদেশেও কারখানা খুলবে শাওমি

চীনের প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান শাওমি বাংলাদেশের বাজারে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা করলো। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে শাওমির ভাইস প্রেসিডেন্ট ও শাওমি ইন্ডিয়ার ম্যানেজিং ডিরেক্টর মানু জেইন জানান, শাওমি বাংলাদেশেও স্মার্টফোন নির্মাণের জন্য কারখানা খোলার পরিকল্পনা নিয়েছে। তবে এজন্য খানিকটা সময় অপেক্ষা করতে হবে। বর্তমানে প্রতিবেশি দেশ ভারতে উৎপাদিত হচ্ছে শাওমির ফোন।

বছর খানেকেরও বেশি সময় ধরে দেশের বাজারে শাওমির পণ্য পাওয়া যাচ্ছে। এবার অফিসিয়ালি শাওমির বাংলাদেশে যাত্রার ঘোষণা এলো। দেশে সোলার ইলেক্ট্রো বাংলাদেশ লিমিটেড শাওমির একমাত্র পরিবেশক।
মানু জেইন বলেন, ‘বিভিন্ন দেশের জন্য শাওমি ভিন্ন ভিন্ন ফিচার সম্বলিত কাস্টমাইজড ফোন তৈরি করে। এরই ধারাবাহিকতায় চীন ছাড়াও ভারত, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুরে নিজস্ব কারখানা রয়েছে। বাংলাদেশের মত গ্রোয়িং মার্কেট ধরতে চায় প্রতিষ্ঠানটি। এজন্য অদূর ভবিষ্যতে এখানে কারখানা স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।’

মানু জেইন আরো বলেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের স্মার্টফোনের বাজারে বেড়েছে। এই বাজারের শাওমি ৪ শতাংশ জায়গা দখল করে আছে। যা ক্রমশ বেড়েই চলেছে।’
মানু জেইন জানান, আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশে যাত্রার পর প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য বাংলাদেশের বাজারে কম দামে শাওমি ফোন পৌঁছে দেয়া।

চীনের শাওমিকে অনেকেই শুধু স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবেই চেনেন!কেননা, এদেশে শাওমির ফোন বেশ জনপ্রিয়। অনেকেই হয়তো জানেন না, শাওমি গৃহস্থলী পণ্যও উৎপাদন করে। শুধু কি তাই! আলপিন থেকে উড়োজাহাজ, কি নেই শাওমির পণ্যের বহরে। আছে সবই। সুটকেস থেকে ইলেকট্রিক টুথব্রাশ। সবই শাওমির দখলে