এবার বিশ্বকাপ জিতবে আর্জেন্টিনা জ্যোতির্বিদের ভবিষ্যদ্বাণী

বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনও বাকি ১০ দিন। কে জিতবে বিশ্বকাপ, তা নিয়েই ইতোমধ্যে চুলচেরা বিশ্লেষণ শুরু হয়ে গেছে। প্রতিবারের মতো এবছরও একেক রকম ভবিষ্যদ্বাণী করছেন একেকজন জ্যোতিষী। দিন দুয়েক আগেই কয়েকজন সংখ্যাতত্ববিদ ব্রাজিলের ওপর বাজি রাখলেও এবার এক জ্যোতির্বিজ্ঞানীর দাবি, বিশ্বকাপ জিতবে আর্জেন্টিনা!













ভারতীয় প্রখ্যাত জ্যোতির্বিদ গ্রিনস্টোন লোবো বলছে, এবছর বিশ্বকাপ জিতবে সেই দেশই যে দেশের অধিনায়কের জন্ম ১৯৮৬ বা ১৯৮৭ সালে। কারণ ওই বছরে জন্মালে গ্রহ নক্ষত্র নাকি বাড়তি সুবিধা পাইয়ে দেবে অধিনায়কদের।

তাহলে কে জিতবেন বিশ্বকাপ? লোবোর যুক্তি অনুযায়ী ব্রাজিলের কোনো সম্ভাবনা নেই, কারণ ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমারের জন্ম ১৯৯২ সালে। সম্ভাবনা নেই ক্রিশিয়ানো রোনালদোরও, কারণ তাঁর জন্ম ১৯৮৫ সালে। তাহলে কারা আছেন লড়াইয়ে?

এই তালিকায় রয়েছেন জার্মান অধিনায়ক ম্যানুয়েল ন্যুয়ার, ফ্রান্সের অধিনায়ক হুগো লরিস, স্পেনের অধিনায়ক সার্জিও ব়্যামোস এবং আর্জেন্টিনার অধিনায়ক মেসি। কিন্তু এই চার দলের মধ্যে কে এগিয়ে কে পিছিয়ে? সেটার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন গ্রিনস্টোন লোবো।













তার যুক্তি, জার্মান অধিনায়ক ম্যানুয়েল ন্যুয়ার এবং কোচ জোয়কিম লো যেহেতু এর আগে একবার বিশ্বকাপ জিতেছেন তাই এবছর তাদের সুযোগ কম। গ্রহ নক্ষত্রের বিচারে যে বাড়তি সুবিধা পাওয়ার কথা ছিল তা জার্মান অধিনায়ক আগের বার পেয়েছেন। তাহলে রইল বাকি তিন দল। স্পেনের অধিনায়ক সার্জিও ব়্যামোসও আগে বিশ্বকাপ জিতেছেন, তাছাড়া রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে এ বছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগও জিতেছেন, তাই তারও সুযোগ কম। বাকি ২টি দল ফ্রান্স এবং আর্জেন্টিনা।

লোবোর দাবি, ফ্রান্স এবং আর্জেন্টিনা দুটি দলেরই প্রায় সমান সুযোগ রয়েছে বিশ্বকাপ জেতার। তবে, ফ্রান্সের থেকে আর্জেন্টিনা কিছুটা এগিয়ে।













কারণ, ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশাম ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপ জিতে নিয়েছেন ইতিমধ্যেই, সে তুলনায় আর্জেন্টিনার জর্জে সাম্পাওলি এখনও বড় কোনও ট্রফি জেতেননি তাই অঙ্কের বিচারে এবার আর্জেন্টিনারই চ্যাম্পিয়ন হওয়া উচিত।

এর আগে নাকি একাধিকবার লোবোর ভবিষ্যদ্বাণী সত্য হয়েছে। ২০১০ সালে স্পেন এবং ২০১৪ সালে জার্মানি চ্যাম্পিয়ন হবে তাও নাকি ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন গ্রিনস্টোন লোবো। তবে কী গত দুবারের মত এবারেও মিলবে লোবোর ভবিষ্যৎবাণী? আর সেটা হলে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের উল্লাস থামাবে কে?