এটা কি বাউন্ডারী ছিল না? ছবি সহ দেখুন

১৪৬ রান তাড়ায় ৫৩ রানে ৪ উইকেট পড়ে গেলেটাইগার ভক্তরা ধরেই নিয়েছিলেন নিশ্চিত পরাজয়। কিন্তু দলের নিশ্চিত পরাজয় জেনেও সাহসিকতার সঙ্গে লড়াই করে গেছেন মুশফিকুর রহিম এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তাদের লড়াইয়ে একটা সময়ে জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু সেই স্বপ্ন ভেস্তে যায় রশিদ খানের করা ইনিংসের শেষ ওভারে।

১৯তম ওভারে করমি জানাতকেএকেরপর এক বাউন্ডারি (পাঁচ বলে পাঁচটি চার) হাঁকিয়ে ২১ রান আদায় করে জয়ের পথ সহজ করে দেন মুশফিক।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল মাত্র ৯ রান।

২০তম ওভারে রশিদ খানের প্রথমবলে ক্যাচ তুলে বিদায় নেন মুশফিক। তার বিদায়ে দুশ্চিন্তায় পড়ে যায় বাংলাদেশ।

জয়ের জন্য ইনিংসের শেষ বলে প্রয়োজন ছিল ৪ রান। স্ট্রাইকে থাকা ব্যাটসম্যান আরিফুল হক ছক্কার জন্য চেষ্টা করেও বল মাঠের বাইরে নিতে পারেননি। লংঅনে ফিল্ডিং করা শফিকুল্লাহ নিশ্চিত ছয় হওয়া বলটিকে অসাধারন নৈপূণ্যে ফিরিয়ে দেন,কিন্তু ছয় না হলেও চার হয়েছিল কি না তা নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ দেখা যায় অ্যাম্পায়ারদের মধ্যে।

ভিডিও রিপ্লেতে ফিল্ডারের পেছনের ক্যামেরা অ্যাঙেল থেকে অনেকটা মনে হয়েছিল চার হয়েছি।পা মাটিতে ছুই ছুই।কিন্তু সিদ্ধান্তটি শেষ পর্যন্ত আফগানদের পক্ষেই দেন অ্যাম্পায়াররা।এর পরেও তখন তিন রানের চেষ্টা করেছিলেন রিয়াদ।শেষ বলে দুই রানের বেশি নিতে না পারায় অসাধারণ খেলেও মাত্র ১ রানের জন্য পরাজয় বরণ করতে হয় মুশফিক-রিয়াদদের।